হোস্টিং কি? হোস্টিং কত প্রকার ও কি কি ? জেনেনিন এখানে।

আপনি যদি ব্লগিং সেক্টরে কাজ করতে চান? সেক্ষেত্রে হোস্টিং কি এবং হোস্টিং কত প্রকার এ বিষয়ে বিস্তারিত জানতে হবে।

Advertisement

তাই যারা গুগল সম্মান করে জানতে চাচ্ছেন, হোস্টিং কি? এবং হোস্টিং কত প্রকার ও কি কি? ? তাদের জন্য আজকের এই আর্টিকেলটি প্রস্তুত করা হয়েছে।

আপনি যদি অনলাইন সেক্টরে একটি ব্লগ বা ওয়েবসাইট তৈরি করতে চান? সে ক্ষেত্রে হোস্টিং কি এ বিষয়ে আপনার ধারণা থাকতে হবে।

তার কারণ হলো পৃথিবীতে সকল মানুষ থাকার জন্য কোন না কোন জায়গা নির্ধারণ করেছে। ঠিক সেরকম ভাবে অনলাইন সেক্টরে একটি ওয়েবসাইট রাখার জন্য প্রয়োজন হয় জায়গা। আর সেই জায়গাটিকে মূলত হোস্টিং বলা হয়।

হোস্টিং কি? হোস্টিং কত প্রকার ও কি কি ?
হোস্টিং কি? হোস্টিং কত প্রকার ও কি কি ?

তাই ব্লগিং করার আগে যে ওয়েবসাইট তৈরি করবেন সেটি কোথায় রাখবেন সে বিষয়ে খেয়াল রাখতে হবে। আরেকটি ওয়েবসাইট যে জায়গায় রাখা হয় তার নাম হলো হোস্টিং।

Advertisement

বর্তমানে একটি ওয়েবসাইট থাকা অনেক বড় বিষয়। আর উক্ত ওয়েবসাইট পরিচালনা করা সকলের পক্ষে সম্ভব হয় না। তার জন্য অনেক জ্ঞান এবং দক্ষতা থাকা জরুরী।

সঠিকভাবে একটি ওয়েবসাইট পরিচালনা করতে, আপনাদের দুইটি বিষয়ে লক্ষ রাখতে হবে। যেমন- ডোমেইন এবং হোস্টিং। এই দুইটি জিনিস ছাড়া আপনারা কখনোই একটি ওয়েবসাইট অনলাইনে প্রকাশ করতে পারবেন না।

তাই চলুন হোস্টিং কি এবং হোস্টিং কত প্রকার ও কি কি এ বিষয়ে বিস্তারিত ধারণা নেয়া যাক।

হোস্টিং কি?

আমরা এই আর্টিকেলটি শুরু করার প্রথমেই বলে দিয়েছি হোস্টিং হলো- এমন একটি সার্ভিস যার মাধ্যমে ওয়েবসাইট বা ব্লগ ইন্টারনেট জগতে আত্মপ্রকাশ করা যায়।

বিশেষ করে আমরা যখন কোন হোস্টিং প্রোভাইডারদের কাছ থেকে হোস্টিং ক্রয় করি। সে সময় অনলাইনে ওয়েব সার্ভারে আমাদের জন্য কিছু জায়গা বরাদ্দ করে দেয়া হয়।

আর সেই ওয়েব সার্ভার এমন একটি কম্পিউটার যা সব সময় ইন্টারনেট কানেকশন থাকে। উক্ত সার্ভার ক্রয় করা জায়গাতে আমরা যখন আমাদের ওয়েবসাইটটি সংযুক্ত করে রাখি।

বিশেষ করে, ওয়েবসাইটে থাকা ভিডিও, অডিও, ফাইল, ইমেজ, করি তখন সেগুলো উক্ত সার্ভারে সংরক্ষিত হয়।

ওয়েব সার্ভার সবসময় ইন্টারনেট এর সাথে সংযুক্ত থাকে। আশা করি বুঝতে পারলেন হোস্টিং মূলত কি। যদি না বুঝে থাকেন। তাহলে উপরের আলোচনা গুলো আরো একবার পড়ে নিন।

হোস্টিং কত প্রকার ও কি কি ?

আমরা ওপরের আলোচনায় জানতে পারলাম হোস্টিং কি? এ বিষয়ে জানার পর, সকলের জেনে নেওয়া উচিত হোস্টিং কত প্রকার ও কি কি?

তো আমি এখন আপনাদের বলবো হোস্টিংয়ের প্রকারভেদ নিয়ে। এক্ষেত্রে হোস্টিং এর বিভিন্ন প্রকারভেদ আছে। কিন্তু যেগুলো বেশি পরিমাণে ব্যবহৃত হয় সেগুলো নিয়ে আমি আগে আলোচনা করব।

তো চলুন আর সময় নষ্ট না করে হোস্টিং কত প্রকার ও কি কি এ বিষয়ে জেনে নেয়া যায়।

  • শেয়ার হোস্টিং
  • ভার্চুয়াল প্রাইভেট হোস্টিং
  • ডেডিকেটেড

আমরা যে, হোস্টিং সার্ভিস এর নাম গুলো আপনাকে বললাম, এগুলো বর্তমান সময়ে অনেক চাহিদা সম্পন্ন। যারা ব্লগিং করছে, তারা মূলত এই হোস্টিং সার্ভিস গুলো ওয়েবসাইটের জন্য ব্যবহার করছে।

তাই আসন এই হোস্টিং সার্ভিস গুলো সম্পর্কে বিস্তারিত ধারণা নেয়া যাক।

শেয়ার হোস্টিং কি?

যে হোস্টিং এ একাধিক ওয়েবসাইট সংরক্ষিত করে রাখা যায় তাকে মূলত শেয়ার হোস্টিং বলা হয়। উদাহরণস্বরূপ বলা যায়- মনে করুন আপনার একটি ভাড়া বাড়ি রয়েছে, সেখানে আপনার পরিবারের সকল সদস্য ভাগাভাগি করে থাকতে পারে।

এক্ষেত্রে আপনার ভাড়া বাড়িটি হলো- একটি ওয়েব সার্ভার। এবং আপনি এবং আপনার পরিবার হলো যারা ভাগাভাগি করে থাকছে। তারা হলো আলাদা আলাদা একটি ওয়েবসাইট।

যার ফলে আপনার সুবিধা হল- আপনার বাড়ি ভাড়া পরিবারের সকলে থাকার পরও কম খরচে থাকতে পারছেন। মূলত এরকমভাবে শেয়ার হোস্টিং অনেকগুলো ওয়েবসাইট একত্রিত করে রাখতে পারে কম খরচে।

শেয়ার হোস্টিং অনেক কম টাকায় বিভিন্ন প্রোভাইডারদের কাছ থেকে কেনা যায়। তবে আমি আপনাকে পরামর্শ দিব আপনি যদি শেয়ার হোস্টিং ব্যবহার করতে চান? তাহলে ইন্টারন্যাশনাল প্রোভাইডার নেমচিপ কে বেছে নিতে পারেন।

কারণ এর মাধ্যমে আপনি ভালো শেয়ার হোস্টিং কিনতে পারবেন।

ভার্চুয়াল প্রাইভেট হোস্টিং কি?

ভার্চুয়াল প্রাইভেট হোস্টিংগুলো মূলত শেয়ার হোস্টিংয়ের তুলনায় অনেক বেশি পরিমাণে ভালো হয়। সত্যি কথা বলতে গেলে, এই ভার্চুয়াল প্রাইভেট হোস্টিং এমন সময় ব্যবহার করতে হবে। যখন আমাদের ওয়েবসাইটে হিউজ পরিমাণের ভিজিটর রাস্তায় থাকবে।

মোটকথা আপনার ওয়েবসাইটের যখন জনপ্রিয় হয়ে উঠবে নিয়মিত লাখ লাখ ভিজিটর আসা শুরু করবে, তখন আপনারা এই ভার্চুয়াল প্রাইভেট হোস্টিং টি কিনে নেবেন।

আর আপনি যদি অল্প ভিজিটর নিয়ে একটি ওয়েবসাইট ব্যবহার করতে চান? সেক্ষেত্রে, আপনার জন্য এই ভার্চুয়াল প্রাইভেট হোস্টিং দরকার পড়বে না।

ডেডিকেটেড হোস্টিং কি?

ডেডিকেটেড হোস্টিং অন্যান্য হোস্টিং এর থেকে আলাদা। তার কারণ শেয়ার হোস্টিং আপনি একসাথে অনেকগুলো ওয়েবসাইট সংরক্ষিত করে রাখতে পারবেন। আবার ভার্চুয়াল প্রাইভেট হোস্টিং শুধুমাত্র একটি ওয়েবসাইট সংযুক্ত করে রাখতে পারবেন।

অন্যদিকে ডেডিকেটেড হোস্টিং হলো- অনেক জনপ্রিয় একটি হোস্টিং সার্ভিস। যা আপনারা হাই স্পিডে ওয়েবসাইট পরিচালনা করতে পারবেন।

প্রচুর পরিমাণে ট্রাফিক ওয়েবসাইটে আসার পরও আপনার সাইটটি কখনো ডাউন হওয়ার সম্ভাবনা থাকবে না।

তবে অন্যান্য হোস্টিংয়ের তুলনায় এই হোস্টিংয়ের দামটি একটু বেশি করবে।

শেষ কথাঃ

তো বন্ধুরা আমাদের আজকের এই আর্টিকেলে আপনাদের জানিয়ে দিলাম হোস্টিং কি? এবং হোস্টিং কত প্রকার ও কি কি এই সম্পর্কে। এখন আপনি যদি ব্লগিং শুরু করতে চান?

তাহলে আপনার পছন্দমত যেকোনো একটি হোস্টিং সার্ভিস বেছে নিয়ে ওয়েবসাইট বানিয়ে ফেলতে পারেন। আর এই পোস্ট সম্পর্কে আপনার যদি কোন প্রশ্ন থাকে। অবশ্যই কমেন্ট করে জানিয়ে দিবেন।

ধন্যবাদ।

Advertisement

Leave a Comment