স্মার্টফোনের ব্যাটারি ব্যাকআপ কিভাবে বাড়াবেন || বিস্তারিত জানুন!

বর্তমান সময়ে আমরা যারা স্মার্টফোন ব্যবহার করি, তারা সব সময় ব্যাটারি ব্যাকআপ নিয়ে চিন্তিত। বিশেষ করে আমরা যে, স্মার্টফোন গুলো ব্যবহার করে, সেগুলো অটোমেটিক মোবাইলে সংযুক্ত থাকে।

Advertisement

আর স্মার্টফোন অল্প সময় ব্যবহার করলে দ্রুত চার্জ শেষ হয়ে যায়। তাই আপনার অ্যান্ড্রয়েড মোবাইলে ব্যাটারি লাইফ যদি একেবারে কমে যায়। বিশেষ করে দ্রুত চার্জ শেষ হয়।

সেক্ষেত্রে কিভাবে আপনার মোবাইলের ব্যাকআপ বাড়াবেন। সে বিষয় নিয়ে আজকের আর্টিকেলটি প্রস্তুত করা হয়েছে।

স্মার্টফোনের ব্যাটারি ব্যাকআপ কিভাবে বাড়াবেন
স্মার্টফোনের ব্যাটারি ব্যাকআপ কিভাবে বাড়াবেন

আপনি যদি আমাদের পরামর্শ অনুযায়ী স্মার্টফোন পরিচালনা করতে পারেন। তাহলে ব্যাটারি লাইফ অনেক ভালো করতে পারবেন। অর্থাৎ ব্যাটারি চার্জ ব্যাকআপ রাখতে পারবেন।

বর্তমান সময়ে আমরা যারা মোবাইলে প্রয়োজনীয় কাজ করি। তারা কিন্তু বারবার মোবাইল চার্জ দিতে পছন্দ করিনা।

Advertisement

এজন্য একটি স্মার্ট ফোন কেনার সময় আমাদের যে বিষয়টি সব থেকে গুরুত্ব দিতে হবে সেটি হল ব্যাটারি ব্যাকআপ কেমন দেয়।

একটি স্মার্টফোনের ব্যাটারির সঙ্গে জড়িত বিভিন্ন সুবিধা রয়েছে। যেমন- দ্রুত চার্জিং, দীর্ঘস্থায়ী ব্যাটারি লাইফ আর ইত্যাদি।

নতুন স্মার্টফোন কেনার সময় যদিও সে ব্যাটারির ধারণ ক্ষমতা বেশি থাকে। তাহলে সেটি ব্যবহার করার কিছুদিন পর দ্রুত চার্জ কমে যাওয়ার সমস্যা দেখা দেয়।

আপনারা অবশ্যই মনে রাখবেন স্মার্টফোনের ব্যাটারি লাইফ বিভিন্ন বিষয়গুলোর উপর নির্ভর করে। এক্ষেত্রে বলা যায়, স্মার্টফোনের স্ক্রিন ব্রাইটনেস, প্রসেসর, ব্যাকগ্রাউন্ডে চলা অ্যাপস, জিপিএস এবং ইন্টারনেট সংযোগ ইত্যাদি।

তাই চলুন স্মার্টফোনের ব্যাটারি ব্যাকআপ কিভাবে বাড়াবেন। সে বিষয়ে বিস্তারিত জেনে নেয়া যাক।

স্মার্টফোনের ব্যাটারি ব্যাকআপ কিভাবে বাড়াবেন ?

স্মার্টফোনের ব্যাটারি ব্যাকআপ কিভাবে বাড়াবেন এ বিষয়ে জানার আগে। আপনাদের জানতে হবে কী কারণে মোবাইল এর চার্জ দ্রুত শেষ হয়ে যায়। অর্থাৎ মোবাইলে চার্জ কেন থাকেনা।

তাই চলুন এমন কিছু গুরুত্বপূর্ণ টিপস জেনে নেয়া যাক। যেগুলো অনুসরণ করে, স্মার্টফোনের ব্যাটারি ব্যাকআপ বাড়িয়ে নিতে পারবেন।

স্ক্রিনে কালো ওয়ালপেপার ব্যবহার করুন

বর্তমান সময়ে, যারা স্মার্টফোন ব্যবহার করে, সকলেই কোন না কোন ওয়ালপেপার ব্যবহার করে। এক্ষেত্রে আপনি যদি মোবাইলের চার্জ ব্যাকআপ করতে চান।

তাহলে যতটা সম্ভব রঙিন ওয়ালপেপার ব্যবহার করার বিপরীতে কালো ওয়াল পেপার ব্যবহার করবেন।

বর্তমান সময়ে, প্রায় বেশিরভাগ স্মার্টফোনে লোকেরা ভিডিও ফুটেজের মাধ্যমে স্কিনে ওয়ালপেপার যুক্ত করে। এক্ষেত্রে আমি আপনাকে পরামর্শ দিব এই ধরনের ভিডিও ওয়ালপেপার গুলো পরিহার করা।

তো আপনি যদি মোবাইল স্ক্রিনে কালো রঙের কোন ওয়ালপেপার ব্যবহার করেন তাহলে ব্যাটারি ব্যাকআপ বাড়িয়ে নিতে পারবেন।

তার কারণ মোবাইল ডিসপ্লের ক্ষেত্রে রঙ্গিন background এর তুলনায় কালো ব্যাকগ্রাউন্ড গুলোর কম পরিমাণের পাওয়ার দরকার হয়।

আপনি যখন কালো ওয়ালপেপার ব্যবহার করবেন। তখন পাওয়ার কম লাগবে আপনার ব্যাটারি চার্জ সেভ থাকবে।

কেন দ্রুত ব্যাটারি চার্জ হচ্ছে?

যখন কথা আসে দ্রুত মোবাইলের চার্জ শেষ হয়ে যাওয়ার। তখন এর সমাধান অবশ্যই রয়েছে।

আপনাদের যে কোন এন্ড্রয়েড মোবাইলের মধ্যে আপনারা ব্যাটারির সাথে জড়িত কিছু গুরুত্বপূর্ণ অপশন পাবেন।

আর সেটা হল ব্যাটারি usage অপশন। উক্ত অপশনটি ব্যবহার করে আপনি সহজেই জেনে নিতে পারবেন। কোন কোন অ্যাপ ব্যবহার কারণে আপনার মোবাইলের ব্যাটারি দ্রুত চার্জ শেষ হচ্ছে।

তার মানে স্মার্টফোনের ব্যাটারি কোন অ্যাপ কতটুকু ব্যবহার করা হচ্ছে সে বিষয়ে জানিয়ে দিবে।

আপনার অ্যান্ড্রয়েড স্মার্ট ফোন থেকে- settings + battery + battery usage by apps অপশনে প্রবেশ করবেন। তারপর আপনার মোবাইলের ব্যাটারি কোন অ্যাপ কত পারসেন্ট ব্যবহার করেছে। সেগুলো আপনি দেখতে পারবেন।

আপনি যদি এমন কোন অ্যাপ খুঁজে পান তা একেবারে ব্যবহার করেন না সেটি মোবাইলের অনেক চার্জ শেষ করে ফেলছে সে ক্ষেত্রে আপনি সেই অ্যাপটি আনইন্সটল করে দিবেন। তাহলে দেখবেন আপনার মোবাইল ব্যাটারি ব্যাকআপ বেড়ে গেছে।

অপ্রয়োজনীয় সার্ভিস বন্ধ করুন

বেশিরভাগ ক্ষেত্রে আমরা স্মার্টফোনে থাকা কিছু সার্ভিস গুলো চালু করে রেখে দেয় ভুল করে, সেগুলো বন্ধ করি না। যেমন- ব্যবহার করা ব্যতীত অপ্রয়োজনে সার্ভিস গুলোর মধ্যে রয়েছে- ওয়াইফাই, জিপিএস, ব্লুটুথ ইত্যাদি।

এ সকল সার্ভিস গুলো চালু রেখে, বন্ধ না করে রেখে দেয়ার জন্য ব্যাটারি লাইফ দুর্বল হতে থাকে।

আপনাকে জানেন ওয়াইফাই এবং ব্লুটুথ অপশন গুলো চালু করে রাখার পর। সেগুলো ক্রমাগত ভাবে বিভিন্ন কানেকশন খুঁজতে থাকে।

অন্যান্য ডিভাইস উপলব্ধ না থাকলেও তারা ক্রমাগত সার্চ করে যাবে। যার ফলে আপনার মোবাইলের চার্জ দ্রুত শেষ হয়ে যাবে।

তাই আপনাকে পরামর্শ দিব মোবাইলের ব্যাটারি চার্জ সেভ করার জন্য, অবশ্যই প্রয়োজন শেষ হলে অপ্রয়োজনীয় সার্ভিস গুলো অফ করে দিবেন।

স্ক্রিন টাইম আউট যুক্ত করুন

আপনি যদি স্মার্টফোনের ব্যাটারির ব্যাকআপ বাড়াতে চান? সে ক্ষেত্রে আপনাকে পরামর্শ দিব আপনি যে, স্মার্টফোনটি ব্যবহার করছেন। সেটির স্ক্রিন টাইম আউট যুক্ত করুন।

বিশেষ করে আমাদের মোবাইলে, অটোমেটিক টাইম ব্রাইটনেস দেওয়া থাকে। আমরা যখন ইচ্ছাকৃতভাবে, স্কিন বন্ধ না করি সে পর্যন্ত সেটি চালু থাকে।

অনেকে আছে মোবাইল স্ক্রিন টাইম আউট করার জন্য, পাঁচ মিনিট থেকে ১০ মিনিট যুক্ত করে দেন। যার ফলে দ্রুত মোবাইলের চার্জ শেষ হয়ে যায়।

তাই আমি আপনাকে পরামর্শ দিব, আপনার মোবাইলের ব্যাটারি ব্যাকআপ বাড়িয়ে নিতে চাইলে, স্কিন টাইম আউট যুক্ত করুন ১৫ সেকেন্ড থেকে সর্বোচ্চ ২০ সেকেন্ডের মধ্যে।

আপনি যখন এই সময়টি যুক্ত করে দিবেন তখন আপনি মোবাইলটি ব্যবহার না করলেও অটোমেটিক ১৫ থেকে ২০ সেকেন্ডের মধ্যে স্লিপ মোডে চলে যাবে। যার ফলে আপনার মোবাইল চার্জ সেভ হবে।

ভাইব্রেট বন্ধ করুন

আমরা অনেকেই আছে যারা রিংটোন এর বিপরীতে মোবাইলে ভাইব্রেট ব্যবহার করে থাকি। আপনারা অবশ্যই মনে রাখবেন যখন আপনার মোবাইলে কোন কল আসবে। তখন সাথে সাথে ভাইব্রেশন হওয়ার কারণে ব্যাটারির অধিক পরিমাণের চার্জ খরচ হয়।

আপনি যদি ভাইব্রেট বন্ধ করে শুধুমাত্র রিংটোন সেট করে রাখেন। সে ক্ষেত্রে মোবাইল চার্জ অনেক কম খরচ হবে। তাই আপনার যদি বিশেষ কোনো প্রয়োজন না থাকে তাহলে মোবাইলের ভাইব্রেট বন্ধ করে রাখুন।

শেষ কথাঃ

তো বন্ধুরা আজকের আর্টিকেলে আমরা শিখতে পারলাম স্মার্টফোনের ব্যাটারি ব্যাকআপ কিভাবে বাড়াতে হয়।

এখন আপনি যদি আমাদের পরামর্শ অনুযায়ী স্মার্টফোন পরিচালনা করেন। তাহলে সহজে ব্যাটারি ব্যাকআপ বাড়িয়ে নিতে পারবেন।

এখন এই পোস্ট সম্পর্কে আপনি যদি আরো কোন কিছু জানতে চান? অবশ্যই আমাদের কমেন্ট করে জানাতে পারেন।

ধন্যবাদ।

Advertisement

Leave a Comment