কিভাবে কম্পিউটার টাইপিং স্পিড বাড়ানো যায়? – Improve Keyboard Typing

কম্পিউটার টাইপিং স্পিড : বর্তমান সময়ে ছোট থেকে বড় সকলেই কম্পিউটার ল্যাপটপে কাজ করে থাকে। বিশেষ করে, যে কোন অফিসে বেশিরভাগ কাজ অনলাইন এবং কম্পিউটারের দ্বারা হয়ে থাকে।

Advertisement

এজন্য আপনার কম্পিউটারের টাইপিং স্পিড যদি ভালো না হয়। সেক্ষেত্রে, আপনি হয়তো ভালো কোন চাকরি সন্ধান পাবেন না।

আপনারা যত দ্রুত ভাবে কম্পিউটার টাইপিং করতে পারবেন। তত সহজেই বিভিন্ন চাকরির সুযোগ আপনার কাছে চলে আসবে।

কিভাবে কম্পিউটার টাইপিং স্পিড বাড়ানো যায়
কিভাবে কম্পিউটার টাইপিং স্পিড বাড়ানো যায়

বর্তমান সময়ে, আমাদের জানা মতো ৭০% মানুষ কম্পিউটারে সঠিকভাবে টাইপিং করা জানেনা। যার ফলে, কিবোর্ডে আপনার আঙ্গুল সঠিকভাবে কাজ করবে না। আর এজন্য আপনার দ্রুত ভাবে টাইপিং করা সম্ভব হবে না।

সেজন্য আজকের এই আর্টিকেলটি প্রস্তুত করা হয়েছে, আমরা আপনাকে বলব। কিভাবে কম্পিউটার টাইপিং স্পিড বাড়ানো যায়।

Advertisement

আপনি যদি আমাদের পরামর্শ অনুযায়ী কাজ করেন। তাহলে আশা করা যায়, মাত্র এক মাসের মধ্যে আপনার কম্পিউটারে টাইপিং স্পিড বাড়িয়ে নিতে পারবেন।

সাধারণ মানুষদের কম্পিউটার টাইপিং করার সক্ষমতা প্রতি মিনিটে বাংলায় 20 ইংরেজিতে 30 শব্দ। যা অনেকটাই কম।

এক্ষেত্রে আমি আপনাদের যে সহজ পদ্ধতি গুলো বলবো। আপনার যদি সেগুলো মন দিয়ে অনুশীলন করতে পারেন। তবে প্রতি মিনিটে বাংলায় 70 এবং ইংরেজিতে 90 শব্দ পর্যন্ত দ্রুত টাইপিং করতে পারবেন।

কম্পিউটার টাইপিং স্পিড বাড়ানোর অসংখ্য উপায় রয়েছে। তবে আমরা যে উপায়গুলো আপনাকে দেখাবো। সেগুলো চমৎকারভাবে কাজ করবে যদি আপনি সঠিক অনুশীলন করতে পারেন।

কিভাবে কম্পিউটার টাইপিং স্পিড বাড়ানো যায়?

কম্পিউটার দ্রুত টাইপিং করার দক্ষতা থাকলে। সে দক্ষতা অনুযায়ী আপনারা বিভিন্ন অফিসে সহজে চাকরি পেয়ে যাবেন। যারা দ্রুত টাইপিং করতে পারে এবং কিবোর্ড টাইপ করার সময় নিয়ম অনুসরণ করে টাইপ করে।

যারা সহজেই ভালো ভালো অফিস, ব্যাংক, সরকারি চাকরির ক্ষেত্রে অন্যদের তুলনায় এক ধাপ এগিয়ে থাকে।

তাই আপনি যদি একজন স্টুডেন্ট হয়ে চাকরির খোঁজ করেন। সে ক্ষেত্রে সময় নষ্ট না করে, কীবোর্ড টাইপ করার সঠিক নিয়ম এবং দ্রুত টাইপ কিভাবে করা যায় এ বিষয়ে শিখে ফেলুন।

তো চলুন জেনে নেয়া যাক। কিভাবে কম্পিউটার টাইপিং স্পিড বাড়ানো যায় সেই সম্পর্কে।

কিবোর্ড টাইপিং এর সঠিক নিয়ম ব্যবহার করুন

কম্পিউটারে কিবোর্ডের টাইপিং স্পিড দ্রুত করার সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো সঠিক নিয়ম ব্যবহার করে টাইপ করা।

সর্বপ্রথম আপনাকে হোম পজিশনের বিষয়ে জানতে হবে।

টাইপিং এর শুরুর অবস্থাই, কিবোর্ডের সব সময় ডান এবং বাম হাতের প্রথম চারটি আঙ্গুল নির্দিষ্ট বাটনে রাখতে হবে।

বাম হাতের 4 টি আঙ্গুল হাতের শেষের আঙ্গুল থেকে A, S, D, F বাটনে থাকতে হবে। তারপর ডানদিকে হাতের প্রথম চারটি আঙ্গুল হাতের শুরুতে J, K, L, ; বাটনে রাখতে হবে।

কম্পিউটারের কিবোর্ড টাইপিং করার আগে, এই নিয়ম অনুযায়ী আঙ্গুল রেখে টাইপ করা শুরু করতে হবে।

আপনার টাইপিং হয়ে যাওয়ার পরে আবার সেই, টাইপিং পজিশনে আঙ্গুলগুলো নিয়ে যেতে হবে। আপনারা মনে রাখবেন কিবোর্ডের হোম পজিশন থেকে সম্পূর্ণ কিবোর্ড বাটন গুলো অনেক সহজে খুঁজে পাওয়া সম্ভব হবে।

তাই কিবোর্ডের হোম পজিশন থেকে টাইপ করার চর্যা করা শুরু করে দিন। যার ফলে আপনার টাইপিং স্পিড অনেক দ্রুত হয়ে যাবে।

হোম অবস্থান ব্যবহার করার সঙ্গে সঙ্গে অবশ্যই হাতের প্রতিটি আঙ্গুল ব্যবহার করবেন। যার ফলে অনেক সহজেই বাটনগুলো খুঁজে পাবেন। নিশ্চিত ভাবে আপনার কম্পিউটার টাইপিং স্পিড বেড়ে যাবে।

কিবোর্ডে শর্টকাট ব্যবহার করুন

কম্পিউটারে কিবোর্ড টাইপিং করার সময়, আপনার যদি জরুরি এবং প্রয়োজনীয় কিছু শর্টকাট কী জানা থাকে। তবে যেকোনো কাজ সম্পন্ন করার সময় আপনার অনেক সাহায্য হবে। যার ফলে দ্রুত আপনি নিজের লেখাগুলো স্পিডে করতে পারবেন।

যেমন আপনার কাজের সময় বিভিন্ন লেখা একই হওয়ার কারণে কপি করার দরকার হয়। সেক্ষেত্রে আপনি কি বোর্ডে CTRL+C টাইপ করলে লেখাটি কপি হয়ে যাবে।

এখন আপনার কপি করা লেখাটি অন্য কোথাও যুক্ত করতে চাইলে, কিবোর্ডে থাকা CTRL+V টাইপ করলে লেখাটি পেস্ট হয়ে যাবে।

এরকমভাবে আপনি যদি কিছু সংখ্যক শর্টকাট মনে রাখতে পারেন। তাহলে টাইপিং কাজের সময় আপনার বেশি সময় নষ্ট হবে না।

এরকম ভাবে মূলত আপনারা টাইপিং স্পিড বাড়িয়ে নিতে পারবেন।

টাইপিং দ্রুত শেখার সফটওয়্যার/ অনলাইন টুলস

আপনি যদি কম্পিউটার টাইপিং এর দুর্বল হয়ে থাকেন। তাহলে অনলাইনে এমন অসংখ্য ফ্রী সফটওয়্যার এবং অনলাইন টুল রয়েছে। যেগুলো ব্যবহার করে টাইপিং স্পিড দূরত্ব করে নিতে পারবেন।

উক্ত অনলাইন টাইপিং টুল গুলোতে, আপনারা মিনিট অনুযায়ী টাইপ করতে পারবেন।

তো টাইপিং দ্রুত শেখার জন্য আপনারা এই speedtypingonline.com অনলাইন ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে পারেন। এই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করলে আপনারা বিভিন্ন ইংরেজি এবং বাংলা শব্দ দেখতে পারবেন।

সেগুলো দেখে দেখে মনোযোগ সহকারে টাইপ করলে। দ্রুত সময়ের মধ্যে আপনারা টাইপিং স্পিড বাড়িয়ে নিতে পারবেন। আপনি যদি ইংরেজি টাইপিং দ্রুত ভাবে করতে পারেন। তাহলে বাংলা টাইপিং ও সহজেই করতে পারবেন।

শেষ কথাঃ

তো বন্ধুরা আপনারা যারা google সন্ধান করে জানতে চান? কম্পিউটার টাইপিং স্পিড বাড়ানোর উপায় কি। তাদের সুবিধার্থে আমরা কম্পিউটার টাইপিং শুরুর বিষয়গুলো সম্পর্কে জানিয়ে দিয়েছি।

আপনি যদি সেই মোতাবেক কিবোর্ড টাইপিং করতে পারেন। তাহলে সর্বোচ্চ এক মাসের মধ্যে টাইপিং এর মাস্টার হয়ে যেতে পারবেন।

আর আজকের আর্টিকেল সম্পর্কে আপনার যদি কোন প্রশ্ন থাকে অবশ্যই কমেন্ট করে জানিয়ে দিবেন।

আমাদের সাথে থাকার জন্য আপনাকে জানাই অসংখ্য ধন্যবাদ।

Advertisement

Leave a Comment