অনলাইনে মাসে ৬০ হাজার টাকা আয় করার উপায়

অনলাইনে ৬০ হাজার টাকা আয় করার উপায় অনেকেই google সন্ধান করে জানতে চান? কারণ এই সময়ে মানুষ অনলাইন কাজগুলোকে অনেক বেশি প্রাধান্য দেয়। কারণ অনলাইনে কাজ করে হাজার হাজার টাকা ইনকাম করার সুযোগ রয়েছে।

Advertisement

আপনারা চাইলে অনলাইনে দক্ষতার সাথে কাজ করে, মাসে অন্তত ৬০ হাজার টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

তাই আমাদের আজকের এই আর্টিকেলে অনলাইন থেকে কোন কোন সেক্টরে কাজ করে ইনকাম করা যায়। সে বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করার চেষ্টা করব।

অনলাইনে মাসে ৬০ হাজার টাকা আয় করার উপায়
অনলাইনে মাসে ৬০ হাজার টাকা আয় করার উপায়

আমরা আশা করি আপনি যদি আমাদের লেখা গুলো ধাপে ধাপে অনুসরণ করেন। তাহলে নিশ্চিন্তে, উক্ত কাজের দক্ষতা সম্পন্ন হতে পারলে, মাস শেষে ৬০ হাজার টাকা থেকে লাখ টাকা পর্যন্ত ইনকাম করতে পারবেন।

আরো পড়ুনঃ

Advertisement

সেই সাথে আপনাকে আর্টিকেলের শুরুতে আরো একটি সুসংবাদ দিতে চাই। সেটি হলো- আমাদের দেখানো অনলাইন প্লাটফর্মের কাজ গুলো করতে আপনার তেমন কোন শিক্ষাগত যোগ্যতার দরকার হবে না।

বিশেষ করে অনলাইন সেক্টরে, কাজ করার জন্য তেমন কোন শিক্ষাগত যোগ্যতার প্রয়োজন পড়ে না। আপনি যদি আমাদের চারপাশে খেয়াল করেন তাহলে দেখতে পারবেন।

অসংখ্য উচ্চ ডিগ্রিধারী শিক্ষিত মানুষ রয়েছে। যারা কিনা চাকরির পেছনে ছুটে ছুটে জীবনটাই ধ্বংস করে দিচ্ছে। আবার আপনি যদি অন্যদিকে খেয়াল করেন, তাহলে দেখতে পারবেন।

কোন রকম মাধ্যমিক পাশ করেছে, তারা কিনা অনলাইন থেকে মাসে 60000 থেকে 1 লক্ষ টাকা ইনকাম করে যাচ্ছে।

তাই বিষয়টি শুনে, অবশ্যই বুঝতে পারলেন অনলাইন সেক্টরে উচ্চ ডিগ্রির প্রয়োজন হয় না। শুধুমাত্র অনলাইন সেক্টরের কাজের দক্ষতা থাকলে, আপনারা ঘরে বসে ইনকাম করার সুযোগ পেয়ে যাবেন।

তাই চলুন আর সময় নষ্ট না করে, মাসে ৬০,০০০/- টাকা ইনকাম করার সেরা উপায় গুলো সম্পর্কে জেনে নেয়া যাক।

ব্লগিং করে টাকা আয়

বর্তমানে অনলাইন জগতে, বেশি পরিমাণে টাকা ইনকাম করার জনপ্রিয় মাধ্যম হলো ব্লগিং। আপনারা চাইলে একদম বিনামূল্যে ব্লগার প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে, ব্লগিং করার জন্য ওয়েবসাইট বানাতে পারবেন।

আবার আপনি যদি প্রফেশনাল ভাবে, অনলাইন থেকে ইনকাম করার চিন্তা করেন। তাহলে কিছু টাকা খরচ করে ওয়ার্ডপ্রেসের মাধ্যমে ওয়েবসাইট বানিয়ে নিতে পারবেন।

আপনি যদি ওয়ার্ডপ্রেস দ্বারা ওয়েবসাইট তৈরি করেন। শুধুমাত্র আপনাকে একটি ডোমেইন এবং হোস্টিং কিনতে হবে।

ডোমেইন কেনার জন্য আপনার বাংলাদেশ টাকায় খরচ হতে পারে, ১০০০ থেকে ১২০০ টাকা। অন্যদিকে হোস্টিং কেনার জন্য আপনার খরচ হতে পারে দুই হাজার টাকা থেকে ২৫০০ টাকা।

সর্বমোট আপনারা ৩৫০০ টাকা খরচ করলেই ওয়ার্ডপ্রেসের মাধ্যমে প্রফেশনাল ওয়েবসাইট বানিয়ে নিতে পারবেন।

তো এখন প্রশ্ন হল- আপনার কি শুধুমাত্র ওয়েবসাইট তৈরি করে ইনকাম করতে পারবেন। এর উত্তরে বলব না। শুধুমাত্র ওয়েবসাইট তৈরি করলে ইনকাম হবে না।

একটি ওয়েবসাইট তৈরি করার পর সেখানে ইউনিক আর্টিকেল লিখতে হবে। আর্টিকেল হতে পারে ইংলিশ কিংবা বাংলা। আপনি যে ভাষায় বেশি পারদর্শী, সে ভাষায় আর্টিকেল লেখা শুরু করবেন।

তারপর পর্যাপ্ত পরিমাণে আর্টিকেল হয়ে গেলে গুগল এডসেন্স আবেদন করে। গুগল এডসেন্স অনুমোদন নিয়ে বিজ্ঞাপন দেখানোর মাধ্যমে ইনকাম করা শুরু করতে পারবেন।

আমরা তো শুধুমাত্র আপনাকে বলেছি মাসে 60000 টাকা ইনকাম কিন্তু আপনারা চাইলে, ব্লগিং করে গুগল এডসেন্স দ্বারা প্রতি মাসে আনলিমিটেড ইনকাম করতে পারবেন।

ফ্রিল্যান্সিং করে টাকা আয়

আমরা জানি ফ্রিল্যান্সিং শুধুমাত্র একটি নির্দিষ্ট কাজ না। ব্যক্তির নিজের গতিতে অনলাইনে স্বাধীনভাবে কাজ করে, টাকা আয় করার সেরা উপায় হল ফ্রিল্যান্সিং।

তবে ফ্রিল্যান্সিং করতে চাইলে একটি নির্দিষ্ট কাজের উপর দক্ষতা সম্পন্ন হতে হবে। বর্তমানে ফ্রিল্যান্সিং সেক্টরে অসংখ্য কাজের চাহিদা রয়েছে যেমন- কন্টেন্ট রাইটিং, ডিজিটাল মার্কেটিং, গ্রাফিক্স ডিজাইন, কপিরাইটিং, ভিডিও এডিটিং ইত্যাদি।

মাসে ২০ হাজার টাকা আয় করার উপায়

আপনারা উপরে দেয়া কাজগুলোর মধ্যে, যেকোনো একটি বিষয়ে, সঠিক কোর্স সম্পন্ন করতে পারলে, ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস- আপওয়ার্ক, ফাইবার ইত্যাদিতে, অ্যাকাউন্ট তৈরি করে, প্রচুর পরিমাণে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

মাইক্রো ওয়ার্ক সাইট থেকে টাকা আয়

অনলাইন সেক্টরে এমন অসংখ্য সাইট আছে যেখানে আপনাকে, খুবই সাধারণ কাজের বিনিময়ে টাকা প্রদান করবে।

যেমন- সবই বা পোস্ট শেয়ার, ইউটিউব ভিডিও দেখা, বিভিন্ন অ্যাপ ইন্সটল করা, বিভিন্ন ওয়েবসাইট সাইনআপ করা ইত্যাদির মাধ্যমে, মাইক্রো ওয়ার্ক সাইট থেকে টাকা আয় করতে পারবেন।

আপনারা চাইলে মাইক্রো ওয়ার্ক সাইট থেকে মোবাইলের মাধ্যমে কাজ করে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

অনলাইন সেক্টরে মাইক্রো ওয়ার্ক করার জনপ্রিয় কিছু ওয়েবসাইট হলো-

  • rapidworkers.com
  • microworkers.com
  • picoworkers.com

আপনারা উপরে থাকা ওয়েবসাইট গুলোতে প্রবেশ করে একাউন্ট ক্রিয়েট করলে। বিভিন্ন ছোট ছোট কাজ করে নিজের ঘরে বসে ইনকাম করার সুযোগ পাবেন।

আরো দেখুনঃ

ডেলিভারি সার্ভিসের মাধ্যমে টাকা আয়

সারা বিশ্বে এমন কোন দেশ নাই। যেখানে ডেলিভারি সিস্টেম চালু নেই। তো আমি আপনাকে বিভিন্ন কুরিয়ার সার্ভিস সম্পর্কে বলবা।

আপনারা কুরিয়ার সার্ভিস এর এজেন্ট হয়ে মোবাইল থেকে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। কুরিয়ার সার্ভিস ছাড়াও আরো অসংখ্য ডেলিভারির কাজ রয়েছে।

যেমন- ফুড পান্ডা তে পার্ট টাইম কিংবা ফুল টাইম হিসেবে আপনার ইচ্ছা অনুযায়ী কাজ করার সুযোগ পাবেন।

পিটিসি সাইট থেকে টাকা আয়

অনলাইনে এমন অসংখ্য সাইট রয়েছে। যারা আপনাকে বিজ্ঞাপনে ক্লিক করানোর জন্য টাকা প্রদান করবে। এই ধরনের ওয়েবসাইট গুলোকে পিটিসি ওয়েবসাইট বলা হয়।

আপনারা প্রজেক্ট শুরু করার আগে এই ওয়েবসাইট গুলোতে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। আপনারা অবশ্যই মনে রাখবেন পিটিসি ওয়েবসাইট গুলো বেশিরভাগ সময় ভুয়া হয়ে থাকে।

তাই কাজ করার জন্য আপনাকে নিশ্চয়ই ভেবেচিন্তে কাজ করতে হবে যে সাইটটি সত্যি সত্যি আসল কিনা। এবং সেই পিটিসি ওয়েবসাইট গুলোতে, কাজ করার বিনিময়ে টাকা প্রদান করে কিনা।

আরো পড়ুনঃ মাসে ১০ হাজার টাকা আয় করার উপায়।

আপনি যদি ভালো একটি পিটিসি ওয়েবসাইট পেয়ে যান সেখানে, বিভিন্ন বিজ্ঞাপন দেখার মাধ্যমে এবং ক্লিক করার মাধ্যমে ইনকাম করার শুরু করতে পারবেন।

এছাড়া আপনি চাইলে পিটিসি ওয়েবসাইট গুলোতে আপনার বন্ধু-বান্ধবদের রেফার করার মাধ্যমেও টাকা আয় করতে পারবেন।

শেষ কথাঃ

আমাদের আজকের আর্টিকেলে বিস্তারিত আলোচনা অনুসরণ করলে অবশ্যই বুঝতে পেরেছেন। অনলাইন থেকে কিভাবে টাকা আয় করা যায় এবং মাসে ৬০ হাজার টাকা আয় করার সেরা উপায় গুলো সম্পর্কে।

তাই আপনি অযথাই বেকার অবস্থায় ঘরে না বসে থেকে, অনলাইনের কোন একটি সেক্টরে কাজ করা শুরু করে দিন।

আমাদের এই ওয়েবসাইটে অনলাইন ইনকাম রিলেটেড বিভিন্ন আর্টিকেল নিয়মিত পাবলিশ করা হয়। আপনি যদি অনলাইনে ছোট ছোট কাজ করে ইনকাম করতে চান? তাহলে আমাদের ওয়েবসাইটটি নিয়মিত ফলো করুন

ধন্যবদা।

Advertisement

Leave a Comment